Director - SIMT

বাণী

মানুষের আগ্রগতির সবচেয়ে বড় নিয়ামক শক্তি হল তার শিক্ষা। আর এই শিক্ষা যদি হয় কর্মমুখী শিক্ষা তাহলে তো কথাই নেই। শিক্ষা প্রসারের উদ্দেশে তথা আমদের দেশে তথ্য প্রযুক্তির বিকাশের লক্ষে বাংলাদেশ সরকার বেসরকারী প্রতিষ্ঠান অনুমোদনের যে বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহন করেছে, তারই আলোকে SAIC Institute of Management and Technology (SIMT) প্রতিষ্ঠিত হয়।

SIMT তার যাত্রার সূচনালগ্ন থেকেই বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত সবকটি আসনেই ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করে আসছে। এই কর্মমুখী শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে একজন ছাত্র-ছাত্রী যেন পেশাগত জীবনে পুঙ্খানু পুঙ্খরুপে তার অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগাতে পারে সেই জন্য SIMT কর্তৃপক্ষ কোর্স চলাকালীন সময়েই ব্যবহারিক ক্লাসের উপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে থাকে। বিদেশে কর্মসংস্থানের ব্যাপারে ৪ বছর মেয়াদী Diploma in Engineering কোর্স সর্বাধিক গুরুত্ব পেয়ে থাকে। আমরা যদি অদক্ষ শ্রমিকের পরিবর্তে একজন Diploma Engineer বিদেশে পাঠাতে পারি তাহলে জনগন প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের মাধ্যমে দেশকে অর্থনৈতিক ভাবে সমৃদ্ধ করতে সহায়ক ভুমিকা পালন করতে পারে।

এছাড়া দেশেও বিভিন্ন বিভাগে প্রচুর কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। তাই কর্মমুখী শিক্ষার মাধ্যমে আমাদের প্রিয় মার্তৃভুমিকে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির স্বর্ণশিখরে পৌঁছানো সম্ভব বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।

 সোহেলি ইয়াছমিন

ফাউন্ডার সেক্রেটারি সাইক গ্রুপ অব এডুকেশন